জনগণের জন্য কাজ করতে চান মিমি

নীলফামারীনিউজ, ডেস্ক রিপোর্ট- ‘মন জানে না’ ছবির প্রচারের সঙ্গে নির্বাচনী প্রচার সমান তালে ব্যালান্স করে চলেছেন জনপ্রিয় টালি অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী।

কীভাবে সামলাচ্ছেন জিজ্ঞাসা করায় অভিনেত্রী বললেন, যেমন দেখছেন তেমন করেই করছি।
যাদবপুরের দায়িত্ব তাঁকে দেওয়ায় খুবিই খুশি তিনি। মিমি বললেন, কলেজ জীবনে ইউনিয়ন করতে বারণ করা হয়েছিল বাড়ি থেকে। তবে এবার বাড়ির সবাই খুশি। কারণ নায়িকার মামারা অনেক আগে থেকেই তৃণমূল পার্টির সঙ্গে যুক্ত।

যাদবপুর এলাকায় সবে দেওয়াল লেখা চলছে। তবে সাধারণ মানুষের মনের কথা জানতে চান মিমি। তিনি চান সাধারণ মানুষ এসে বলুক তাদের অসুবিধার কথা।

নির্বাচনের জন্য নতুন ছবি ‘বিবাহ অভিযান’ ছাড়তে হল, দুঃখ হয়েছে? এই প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানালেন, দুঃখ তো হবেই, আমাকে ঘিরেই এই গল্পটি লেখা হয়েছিল, তবে এখন আমার মাথায় শুধুই নির্বাচন, অমি ভালো কাজ করতে চাই ,সে ক্যামেরার সামনে হোক কিংবা ক্যামেরার পিছনে থেকে।

রাজনীতিতে জেতার জন্য কোন স্ট্র্যাটেজি নিচ্ছন না তিনি, তাঁর বিশ্বাস এতদিন মানুষ তাঁকে ভালবেসেছেন, আগামী দিনেও তাকে আশীর্বাদ করবেন।

নায়িকা মিমি যেদিন নির্বাচনে দাঁড়ালেন, সেদিন থেকেই তাঁকে ট্রোল করা হচ্ছে, তবে তিনি এতে একদমই বিচলিত নন। কারণ তাঁর মতে ছবিতে অভিনয় করে যশ, অর্থ, পরিচিতি সবই তিনি অর্জন করেছেন। তাই স্বাভাবিক ভাবেই রাজনীতিতে তিনি মানুষের জন্য কাজ করতেই আসছেন, তাই কে সমালোচনা করল তাতে কান দিতে চান না তিনি।

সব শেষে তাঁর কাছে প্রশ্ন করা হয়েছিল রাজনীতে তাঁর আইডল কে? এক বাক্যে বললেন, আমাদের দিদি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছাড়া আর কেই বা হতে পারেন।

‘এই গণমাধ্যমে প্রকাশিত কোন সংবাদ বা তথ্য কপি/পেষ্ট করে প্রকাশ করা কপিরাইট আইনে অবৈধ এবং দন্ডনীয় অপরাধ।’

‘সব ধরনের ঘটনা আমাদের জানাতে ০১৭১০৪৫৪৩০৬ নাম্বারে কল করুন।’