নীলফামারীতে স্থানীয় পর্যায়ে টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট বাস্তবায়নে কর্মশালা

নীলফামারীনিউজ, ষ্টাফ করেসপন্ডেন্ট- স্থানীয় পর্যায়ে টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট বাস্তবায়ন বিষয়ক কর্মশালায় জানানো হয়, এমডিজি বাস্তবায়নে বাংলাদেশের সাফল্য আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ভাবমুর্তি উজ্জ্বল করেছে। উন্নয়নের এ ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে প্রধানমন্ত্রী ও তার সরকার জাতিসংঘ ঘোষিত ২০৩০ এজেন্ডা তথা টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট এবং নির্বাচনী ইশতেহার বাস্তবায়নে বদ্ধপরিকর।

এরই আলোকে মঙ্গলবার (১৪ মে) নীলফামারী জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে দিনভর এসডিজি বাস্তবায়ন বিষয়ক এক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, পৌর মেয়র, জেলা/উপজেলা পর্যায়ের বিভিন্ন সরকারী দপ্তরের উর্দ্ধতন কর্মকর্তা, নাগরিক সমাজের প্রতিনিধি, শিক্ষাবিদ, খ্যাতনামা ব্যক্তিত্ব, সমাজকর্মী, ধর্মীয় নেতা, এনজিও কর্মী, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার প্রতিনিধি, পেশাজীবি সংগঠনের প্রতিনিধি, ব্যবসায়ী প্রতিনিধি, নারী উদ্যোক্তা, বেসরকারী খাতের প্রতিনিধি, অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর প্রতিনিধি এবং কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

কর্মশালার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক নাজিয়া শিরিন। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আজহারুল ইসলাম।

আরও জানানো হয়, টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট অর্জনে জনপ্রশাসনের দক্ষতা বৃদ্ধিকরণ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় “আমার গ্রাম আমার শহর” আদর্শকে ধারন করে প্রতিটি জেলা/উপজেলায় স্থানীয় পর্যায়ে টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট বাস্তবায়নে এ কর্মশালার আয়োজন করা হয়।

কর্মশালায় অংশগ্রহনকারীগন একাধীক গ্রুপে বিভক্ত হয়ে অগ্রাধীকার সূচকের বিপরীতে স্থানীয় করণীয় নির্ধারণ করেন। ওই সূচক অর্জনে স্থানীয়ভাবে চ্যালেঞ্জ বা প্রতিবন্ধকতা কী, তা নিয়ে ব্যাপক আলোচনা ও পর্যালোচনা হয়। পরে তা লিপিবদ্ধ করা হয়। এ ছাড়াও স্থানীয় সূচকটি নির্ধারন করে এর বিপরীতে স্থানীয় করণীয় নির্ধারন করা হয়।

‘এই গণমাধ্যমে প্রকাশিত কোন সংবাদ বা তথ্য কপি/পেষ্ট করে প্রকাশ করা কপিরাইট আইনে অবৈধ এবং দন্ডনীয় অপরাধ।’

‘সব ধরনের ঘটনা আমাদের জানাতে ০১৭১০৪৫৪৩০৬ নাম্বারে কল করুন।’