ঈদে স্ত্রীকে ঘুরতে নিয়ে বন্ধুদের দিয়ে ধর্ষণ করিয়ে পালিয়ে গেল স্বামী!

নীলফামারীনিউজ, ডেস্ক রিপোর্ট- নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় ঈদের ছুটিতে এসে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক গার্মেন্টস্ কর্মী। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কেন্দুয়া মদন সড়কের শাপলা ইটখলায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশ রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

কেন্দুয়া সার্কেলের এএসপি মাহমুদুল হাসান ভিকটিমের বরাত দিয়ে জানান, মদন থানার জাউলা গ্রামের সুমনের সঙ্গে কেন্দুয়া থানার মাসকা গ্রামের ওই নারী গাজীপুরে একটি সোয়েটার কোম্পানিতে চাকরি করেন। তারা দু’জনেই আগে থেকে বিবাহিত থাকার পরও আবার বিয়ে করেন। ঈদের ছুটিতে বাড়ি আসায় কথিত স্বামী সুমন ওই নারীকে কেন্দুয়া মাসকা নিজ বাড়ি থেকে নিয়ে মোটরসাইকেলে ঘুরতে বের হন।

এরপর শাপলা ইটখলার কাছে আসতেই মোটরসাইকেলটির স্টার্ট বন্ধ হয়ে যায়। নষ্ট হয়ে গেছে বলে তা ঠেলতে থাকেন। তখন ইটখলা থেকে তিন যুবক বেরিয়ে তাদেরকে ধরে ভেতরে নিয়ে ওই নারীকে ধর্ষণ করে। পরে ওই নারীর স্বামীসহ ধর্ষণকারীরা মোটরসাইকেল চালিয়ে পালিয়ে যায়। ধর্ষণের শিকার নারীকে থানায় নিয়ে যাওয়া হলে পুলিশ রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যায়।

এএসপি মাহমুদুল হাসান আরও বলেন, ওই নারীকে মোটরসাইকেলে করে নিয়ে আসার সময় তার কথিত স্বামীর ফোনে বারবার ফোন আসছিল। সেইসঙ্গে মোটরসাইকেল নষ্ট হলে পরে আবার কী করে সেটি স্টার্ট নিল? এই ব্যাপারটা একটু রহস্য লাগছে। ভিকটিম ভালো করে স্বামীর বাড়িঘরের ঠিকানাও বলতে পারে না। তবে পুলিশ তৎপর রয়েছে। কথিত স্বামীকে আটক করতে পারলে ঘটনার আসল রহস্য বেরিয়ে আসবে। এ ঘটনায় ওই নারীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

‘এই গণমাধ্যমে প্রকাশিত কোন সংবাদ বা তথ্য কপি/পেষ্ট করে প্রকাশ করা কপিরাইট আইনে অবৈধ।’

‘সব ধরনের ঘটনা আমাদের জানাতে ০১৭১০৪৫৪৩০৬ নাম্বারে কল করুন।’