নীলফামারী হাসপাতালে মেয়াদ উত্তীর্ণ স্যালাইন প্রয়োগ, প্রতিবাদে বিক্ষোভ

নীলফামারীনিউজ, ডেস্ক রিপোর্ট- নীলফামারী আধুনিক সদর হাসপাতালে রোগীকে মেয়াদ উত্তীর্ণ স্যালাইন প্রয়োগ করার প্রতিবাদে ভুক্তভোগী পরিবার অপরাধীদের শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছে।রবিবার (২২ সেপ্টেম্বর) সকালে সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সামনে মেয়াদ উত্তীর্ণ স্যালাইন হাতে ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যসহ সচেতন অনেকেই তাদের কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেন।

সূত্র জানায়, শনিবার রাত ১০টায় শহরের নতুন বাজার কলোনি এলাকার আব্দুল ওহাবের স্ত্রী মল্লিকা বেগমকে (৫০) অসুস্থ অবস্থায় সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি হন। পরে ওয়ার্ডে দায়িত্বরত নার্স তাকে স্যালাইন পুশ করেন।

রাত ১২টার দিকে রোগীর স্বজনরা বুজতে পারেন স্যালাইনটি মেয়াদ উত্তীর্ণ। বিষয়টি নিয়ে দায়িত্বরত নার্সের সঙ্গে তাদের বাকবিতণ্ডা হয়। ঘটনাটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। হাসপাতালের স্টোরে মেয়াদ উত্তীর্ণ আরও ওষুধ ও স্যালাইন রয়েছে এমন অভিযোগে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে রাতেই হাসপাতালের স্টোর সিলগালা করা হয়।

এদিকে রবিবার সকালে বিষয়টি নিয়ে রোগীর লোকজনের সঙ্গে এলাকার শত শত মানুষ এক হয়ে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও দোষীদের বিচারের দাবিতে সিভিল সার্জন দপ্তর অবরুদ্ধ করে রাখেন। এ সময় উত্তেজনা দেখা দিলে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত হয়ে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের আশ্বাস দিলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

নীলফামারীর সিভিল সার্জন ডা. রঞ্জিত কুমার বর্মণ জানিয়েছেন, ঘটনা তদন্তে ডা. এএসএম রেজাউল করিমকে প্রধান করে ৩ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী ১০ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করে সাংবাদিকদের জানানো হবে।

‘এই গণমাধ্যমে প্রকাশিত কোন সংবাদ বা তথ্য কপি/পেষ্ট করে প্রকাশ করা কপিরাইট আইনে অবৈধ।’

‘সব ধরনের ঘটনা আমাদের জানাতে ০১৭১০৪৫৪৩০৬ নাম্বারে কল করুন।’