সৈয়দপুরে মৃত্যুকূপের খেলোয়াড়কে মেরে টাকা ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ

এম,জেড,হাসান-নীলফামারীর সৈয়দপুর ইসলামবাগ চিনি মসজিদ এলাকার মো.গোলাম রব্বানীর ছেলে মৃত্যু কূপের মোটরসাইকেল ও কার এর চালক ও খেলোয়াড় মো.রাশেদ আহমেদ(৩২)কে মারপিট করে ষাট হাজার টাকা ছিনিয়ে নেওয়ায় থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।
শুক্রবার(২৭সেপ্টেম্বর) সৈয়দপুর থানায় এই অভিযোগ করা হয়।
অভিযোগে জানাযায়,ওয়াপদা এলাকার আফছার চৌধুরীর ছেলে জুয়েল চৌধুরী ও সালাম প্রধানের ছেলে হীরা প্রধান সহ আরো কয়েকজন মিলে রাশেদ আহমেদের বন্ধুর ছোট বোন রেলওয়ে কর্মচারী ঝিনুক সওদাগরকে ১৫/২০দিন পূর্বে জোরপূর্বক ভাবে তুলে নেওয়ার চেষ্টা করলে।ঝিনুক মুঠোফোনে ব্যাপারটি রাশেদ কে জানান।পরে রাশেদ আমিন মোড় নামক স্হানে জুয়েল গংদের আটক করে ঝিনুকে উদ্ধার করে। বিষয়টি সৈয়দপুর থানাকে অবগত করলে।পরে সৈয়দপুর থানায় বসে বিষয়টি মিমাংসিত হয়। আর এই ঘটনার জের ধরে রাশেদ আহমেদ কে জুয়েল চৌধুরী মোবাইল ফোনে প্রান নাশের হুমকি দেয়া সহ দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে আসছে।চাঁদার দুই লাখ টাকা না দেওয়াতে গত ২৭সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় সৈয়দপুর চৌধুরী টাওয়ার সংলগ্ন বনফুল হোটেলের রান্না ঘরের ভিতরে জুয়েল চৌধুরী, হীরা প্রধান, হুদা সহ আরো ৮/১০ মিলে রাশেদ আহম্মেদকে এলোপাতাড়ি মারপিট করে।রাশেদের চিৎকার শুনে সাদ্দাম, সম্রাট, রকিব সহ আরো তিন চার জন তাকে উদ্ধার করে।এসময় রাশেদের পকেটে থাকা পারিবারিক কাজের ষাট হাজার টাকা হীরা প্রধান ছিনিয়ে নিয়ে তারা সবাই পালিয়ে যায়।এই ব্যাপারে সৈয়দপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করেন রাশেদ আহম্মেদ।
অভিযোগটি তদন্তের জন্য সৈয়দপুর গোলাহাট পুলিশ ফাঁড়ির ইনর্চাজ(ওসি) রেজওয়ানের নিকট রয়েছে জানাযায়।
এব্যাপারে ফাঁড়ি ইনর্চাজ রেজওয়ানের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে সে বলেন, বিষয়টি তদন্তের পর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

‘এই গণমাধ্যমে প্রকাশিত কোন সংবাদ বা তথ্য কপি/পেষ্ট করে প্রকাশ করা কপিরাইট আইনে অবৈধ।’

‘সব ধরনের ঘটনা আমাদের জানাতে ০১৭১০৪৫৪৩০৬ নাম্বারে কল করুন।’