কিশোরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের কাউন্সিল অনুষ্ঠিত

খাদেমুল মোরসালিন শাকীর,কিশোরগঞ্জ(নীলফামারী): নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হলেন মোঃ জাকির হোসেন বাবুল ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ মশিয়ার রহমান। কিশোরগঞ্জ বহুমুখী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিলে গোপন ভোটের মাধ্যমে পদ দু’টি নির্বাচিত হয়।
কিশোরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের বহুল প্রত্যাশিত ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিল মঙ্গলবার(১অক্টোবর) দুপুরে শুরু হয়। দীর্ঘ ১৩ বছর পর এ কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হওয়ায় কাউন্সিলরদের মাঝে দিনব্যাপি উৎসবের আমেজ দেখা যায়। কাউন্সিলে সভাপতি পদে প্রতিদ্বন্দিতা করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ জাকির হোসেন বাবুল, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মোঃ এছরারুল হক, এ্যাডভোকেট মোঃ আমিরুল ইসলাম আমির। গোপন ভোটে মোঃ জাকির হোসেন বাবুল ২শ’ ৩ ভোট পেয়ে সভাপতি নির্বাচিত হন। প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী মোঃ এছরারুল হক ১ শ’ ৩০ ভোট ও এ্যাডভোকেট আমিরুল ইসলাম আমির ৭ ভোট পেয়েছেন। এদিকে সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী ছিলেন ৫জন। এরা হলেন মোঃ মশিউর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ রফিকুল ইসলাম সাজু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বাহাগিলী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আতাউর রহমান শাহ্, আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ আবু আলম, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি পতিরাম চন্দ্র। মোঃ মশিউর রহমান ৯৯ ভোট পেয়ে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী মোঃ রফিকুল ইসলাম সাজু ৯৬ ভোট, মোঃ আতাউর রহমান শাহ্ ৭৮ ভোট, পতিরাম চন্দ্র ৫৪ ভোট ও মোঃ আবু আলম ১২ ভোট পেয়েছেন। কাউন্সিলে কাউন্সিলর ছিলেন ৩শ’ ৪৫ জন। ভোট সন্ধ্যা ৬.৩০ মিনিটে শুরু হয়ে শেষ হয়েছে রাত ৯ টায়। এ সময় আংশিক কমিটি ঘোষনা দেয়া হয়েছে এবং ১ মাসের মধ্যে পুর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষনা করা হবে বলে জানা গেছে। কাউন্সিলে মোঃ এছারুল হকের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন নীলফামারী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন নীলফামারী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট মমতাজুল ইসলাম। এছাড়াও জেলা ও উপজেলার নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

‘এই গণমাধ্যমে প্রকাশিত কোন সংবাদ বা তথ্য কপি/পেষ্ট করে প্রকাশ করা কপিরাইট আইনে অবৈধ।’

‘সব ধরনের ঘটনা আমাদের জানাতে ০১৭১০৪৫৪৩০৬ নাম্বারে কল করুন।’