নীলফামারীতে আদালতে বিচারকের সামনেই গলাকেটে আসামীর আত্মহত্যার চেষ্টা!

নীলফামারীনিউজ, ডেস্ক রিপোর্ট- নীলফামারীতে আদালতের এজলাসে শুনানি চলাকালে বিচারকের সামনেই হাতকড়া দিয়ে গলা কেটে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন এক আসামি।

তার নাম জাহিদুল ইসলাম শুভ (৩০)। সে মোটরসাইকেল চুরি মামলায় অভিযুক্ত।শুভ চাঁদপুর জেলার কচুয়া উপজেলার লক্ষীপুর গ্রামের আব্দুল মান্নানের ছেলে।

সোমবার (৪ নভেম্বর) দুপুরে নীলফামারীর চিফ জুডিসিয়াল আদালতের সিনিয়র জুডিসিয়াল আমলী আদালত-২ এ শুনানি চলাকালে এ ঘটনা ঘটে।

সৈয়দপুর থানার জিআরও ফজলুল হক জানান, ঠাকুরগাঁওয়ে একটি চুরির মামলায় গত ৩ অক্টোবর শুভসহ চারজনকে আটক করা হয়। এদিকে গত ২৬ সেপ্টেম্বর সৈয়দপুর থেকে তিনটি মোটরসাইকেল চুরির ঘটনা ঘটে। এ চুরির মামলায় তদন্ত করে ঠাকুরগাঁওয়ে আটক ওই চারজনের সম্পৃক্ততা পাওয়া যায়। সেই মামলায় তাদের গ্রেফতার দেখাতে আদালতে হাজির করা হয়। দুপুরে আদালতে শুনানি চলাকালে মিথ্যা মামলায় তাকে আসামি করা হয়েছে এমন অভিযোগ করে ক্ষুব্ধ হয়ে শুভ হাতকড়া দিয়ে গলায় আঘাত করে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। এতে তার গলার কিছু অংশ কেটে যায়। পরে পুলিশ সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে নীলফামারী আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

নীলফামারী আধুনিক সদর হাসপাতালের মেডিক্যাল অফিসার ডা. জাহাঙ্গীর আলম জানান, হাতকড়া দিয়ে আঘাত করায় কিছুটা কেটে গেছে। তবে সে এখন শঙ্কামুক্ত।ে

এদিকে বিচারকের সামনেই হাতকড়া দিয়ে আসামীর গলা কেটে আত্মহত্যার চেষ্টার ঘটনাটি পুরো নীলফামারী শহরজুড়ে ‘টক অব দা টাউনে’ পরিণত হয়েছে।

‘এই গণমাধ্যমে প্রকাশিত কোন সংবাদ বা তথ্য কপি/পেষ্ট করে প্রকাশ করা কপিরাইট আইনে অবৈধ।’

‘সব ধরনের ঘটনা আমাদের জানাতে ০১৭১০৪৫৪৩০৬ নাম্বারে কল করুন।’