বাঁচতে চায় নীলফামারীর জাহাঙ্গীর

নীলফামারীনিউজ, ডেস্ক রিপোর্ট- দরিদ্র বাবার মুখে হাসি ফোটাবে বলে এতদিন বুকের মধ্যে যে স্বপ্ন বুনছিল নীলফামারীর জাহাঙ্গীর সেই স্বপ্ন আজ ফিকে হতে বসেছে তার। ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনার স্বীকার হয়ে হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছে জাহাঙ্গীর।

জানা যায়, নীলফামারী শহরের মিলন পল্লির জয়নাল হোসেনের ছেলে , নীলফামারী সরকারি কলেজের মাস্টার্সের মেধাবী শিক্ষার্থী জাহাঙ্গীর হোসেন গত ৩০ অক্টোবর দিনাজপুরের হিলিতে সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর জখম হন। দুর্ঘটনায় তার ডান পায়ের নিচের অংশ থেকে হাটুর ওপর পর্যন্ত মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়।

জাহাঙ্গীর হোসেনকে প্রাথমিকভাবে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় চিকিৎসকের পরামর্শে ৪ নভেম্বর ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়। বর্তমানে জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন প্রতিষ্ঠান (পঙ্গু হাসপাতাল), শ্যামলী, ঢাকার জরুরী বিভাগের চার তলায় ( বেড-৪০ ) ভর্তি আছে।

সেখানকার দায়িত্বরত চিকিৎসক জানান, জাহাঙ্গীরের ডান পায়ের হাটুর ওপরের হাড় পুরোপুরি ড্যামেজড, শুধু রক্তনালী সচল আছে।

প্রথমদিকে পুরো পা কেটে ফেলতে হবে এমন আশঙ্কা থাকলেও অপারেশন করে জাহাঙ্গীরের পায়ের অবস্থা বর্তমানে কিছুটা ভালো। দিনমজুর বাবা জয়নাল হোসেন তাদের একমাত্র সম্বল ২ টি গরু বিক্রি করে প্রাথমিকভাবে ছেলের চিকিৎসার খরচ বহন করেন।

তবে জাহাঙ্গীরকে পুরোপুরি সুস্থ করতে পরবর্তীতে আরও ২-৩ টা মাইনর সার্জারী লাগতে পারে। তার এই চিকিৎসার জন্য প্রতিদিন প্রচুর পরিমানে অর্থ ব্যয় হচ্ছে যা তার দিনমজুর পিতা ও পরিবারের একার পক্ষে সংগ্রহ করা অনেক কষ্টসাধ্যের।

এমতাবস্থায় এ অবস্থায় জাহাঙ্গীরের চিকিৎসার জন্য বিত্তবান ব্যক্তিদের সহযোগিতা কামনা করছে তার পরিবার। আর্থিক সাহায্য পাঠানোর জন্য যোগাযোগ:

আর্থিক সাহায্য পাঠাতে:

বিকাশ: ০১৭৬২৩১২২২১ ( রুকু ) রকেট: ০১৭৬২৩১২২২১ ( রুকু )

জরুরী প্রয়োজনে যোগাযোগ: ০১৭১৭৫০৩৮৫৮(বাবাঃ জয়নাল হোসেন)

‘এই গণমাধ্যমে প্রকাশিত কোন সংবাদ বা তথ্য কপি/পেষ্ট করে প্রকাশ করা কপিরাইট আইনে অবৈধ।’

‘সব ধরনের ঘটনা আমাদের জানাতে ০১৭১০৪৫৪৩০৬ নাম্বারে কল করুন।’