নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে স্ত্রীর কাপড় ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ

খাদেমুল মোরসালিন শাকীর, কিশোরগঞ্জ (নীলফামারী) প্রতিনিধি- নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলায় জমিজমা নিয়ে প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে নিজেই নিজের শরীরে আঘাত ও কাপড় ছিড়ে হয়রানি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

অভিযোগসূত্রে জানা গেছে- কিশোরগঞ্জ উপজেলার গাড়াগ্রাম সরকার পাড়া গ্রামের মৃত আব্দুর রাজ্জাকের স্ত্রী এসমোতারা বেগম তার পুত্র সন্তান নিয়ে স্বামীর পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত জমিতে বসবাস করে আসছিল।

তপশীল বর্ণনামতে গাড়াগ্রাম মৌজার জেএল নং-৩৯, খতিয়ান নং-এসএ-২১২, বিএস-৩৩৩,দাগ-নং এসএ-৯৪৪৯,৯৪৪৮,হাল-১২৫২৫ জমির পরিমাণ ১৯ শতকের মধ্যে ১৩ শতাংশ জমি স্বামীর পৈত্রিক সূত্রে এসমোতারা বেগম মালিক। উক্ত জমিতে বাউন্ডারী ওয়াল নির্মাণ কাজ শুরু করলে প্রতিবেশী বিলকিছ বেগম এসে ওয়ালের ইট খুলে ফেলে দেয়।

এ সময় তার স্বামী গোলাম মোস্তফা প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করার জন্য তার স্ত্রী বিলকিছ বেগমের পরিহিত কাপড় ছিড়ে দিয়ে চিৎকার দিয়ে ঝগড়া বিবাদ সৃষ্টির চেষ্টা করে। এ সময় বিলকিসের ভাই চাঁদখানা ইউনিয়ন ১নং ওয়ার্ডের সদস্য লুৎফর রহমান (ভাকু) মেম্বার,বিলকিস বেগমের ছেলে গোলাম রব্বানী, মেহের আলী, রেদোয়ানসহ অনেকে এসে ইট এর বাউন্ডারী ওয়ালের ইট খুলিয়া অনুমান ৫০,০০০/- (পঞ্চাশ) হাজার টাকার ক্ষতি করে।

এছাড়া এসমোতারা তাদের এ কর্মকান্ডে বাধা দিলে বিভিন্ন গালিগালাজ শুরু করে বেধরক মারপিট করেছেন বলে অভিযোগ করেন। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে বিলকিস গং এ কর্মকান্ড করেছে। এছাড়া এসমোতারা ও তার ছেলে সরকারি চাকুরীজীবিকে বিভিন্ন গালিগাল করাসহ প্রাণ নাশের হুমকী দেয়ারও অভিযোগ করেন ।

এ ব্যাপারে কিশোরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ হারুন অর রশীদ’র সাথে কথা হলে তিনি বলেন,দু’পক্ষই লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

‘এই গণমাধ্যমে প্রকাশিত কোন সংবাদ বা তথ্য কপি/পেষ্ট করে প্রকাশ করা কপিরাইট আইনে অবৈধ।’

‘সব ধরনের ঘটনা আমাদের জানাতে ০১৭১০৪৫৪৩০৬ নাম্বারে কল করুন।’