পাকিস্তানে পুলিশ একাডেমিতে হামলার দায় স্বীকার আইএসের

নীলফামারীনিউজ, ডেস্ক রিপোর্টঃ পাকিস্তানে পুলিশ একাডেমিতে জঙ্গি হামলায় অন্তত ৫৯ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন শতাধিক। মর্মান্তিক এই হামলার দায় স্বীকার করেছে জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস)। এমনটাই দাবি করেছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম স্কাই নিউজ। আইএস সংশ্লিষ্ট বার্তা সংস্থা আমাক জানায়, আইএস এই হামলা চালায়।

এদিকে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি দেশটির নিরাপত্তা বিভাগের কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে জানায়, পাকিস্তানের কুয়েটা শহরের ক্যাডেট কলেজটিতে আত্মঘাতী বোমা গায়ে তিন জঙ্গি প্রবেশ করে। সেখানে তারা গুলিও চালায়। দীর্ঘ অপারেশন শেষে এই কলেজ থেকে জঙ্গিদের প্রতিহত করতে সক্ষম হয় সেনাবাহিনী ও ফ্রোন্টায়ার কোর্পস বিভাগ।

প্রাথমিকভাবে জানা যায়, কলেজের ক্যাডেট ও গার্ড সহ কমপক্ষে ৪৪ জন নিহত ও ৬৭ জন আহত হয়েছেন। কিন্তু অপারেশন শেষে পৃথক দুটি রিপোর্টে নিহতের সংখ্যা প্রথমে ৫১ ও পরে তা বেড়ে ৫৯ হয়েছে বলে জানানো হয়। এই ঘটনায় আরো ১২০ জন আহত হয়েছেন বলে জানা যায়। আহতদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর।

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম ডন জানায়, হামলা চলাকালে কলেজটিতে ৭০০ জন ক্যাডেট ছিল। সেখানে আত্মঘাতী বোমা গায়ে লাগিয়ে তিন জঙ্গি প্রবেশ করে। তাদের বিরুদ্ধে প্রতিরক্ষা গড়ে তোলে সেনাবাহিনী ও ফ্রোন্টায়ার কোর্পস বিভাগ।

ফ্রন্টেয়ার কোর্পস বিভাগের ইন্সপেক্টর জেনারেলের দায়িত্বে থাকা মেজর জেনারেল শের আফগান বলেন, আসলে কতজন মারা গেছে তা এখনই নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। তবে কমপক্ষে ২০ জন নিহত ও ৬৫ জনের বেশি আহত হয়েছেন।

তিনি আরো জানান, জঙ্গিরা আফগানিস্তান থেকে তাদের হ্যান্ডেলারের মাধ্যমে যোগাযোগ করছিল। তারা তিনজন আত্মঘাতী বোমা নিজেদের গায়ে লাগিয়ে এসেছিল। এদের মধ্যে দুইজন নিজেদের বোমা বিস্ফোরণ ঘটাতে সক্ষম হয়। এর ফলেই এই হতাহতের ঘটনা ঘটে। অপর একজন আমাদের অপারেশনে চলা গুলিতে নিহত হয়। এই সন্ত্রাসীদের দমন করতে প্রায় ৪ ঘণ্টা ধরে অপারেশন চলে বলে দাবি করেন তিনি। বিবিসি ও স্কাই নিউজ

‘এই গণমাধ্যমে প্রকাশিত কোন সংবাদ বা তথ্য কপি/পেষ্ট করে প্রকাশ করা কপিরাইট আইনে অবৈধ।’

‘সব ধরনের ঘটনা আমাদের জানাতে ০১৭১০৪৫৪৩০৬ নাম্বারে কল করুন।’