নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে ভাঙ্গা ব্রিজ নিয়ে ভোগান্তিতে এলাকাবাসী

মো. খাদেমুল মোরসালিন শাকীর, কিশোরগঞ্জ (নীলফামারী) করেসপন্ডেন্ট- নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার কিশোরগঞ্জ-তাড়াগঞ্জ সড়কের চাঁড়ালকাঁটা নদীর উপর নির্মিত বেইলি ব্রীজের পাটাতন ভেঙে যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। এ অবস্থায় চরম দুর্ভোগের স্বীকার হচ্ছে এলাকাবাসী। মঙ্গলবার (০৬ মার্চ) বিকালে ব্রীজটির পাটাতন ভেঙে গেলেও এখন পর্যন্ত কর্তৃপক্ষ কোন ব্যবস্থা না নেওয়ায় ভারি যান চলাচল বন্ধ রয়েছে।

সরেজমিনে গিয়ে স্থানীয় লোকজনের সাথে কথা বলে জানা গেছে, গত ২০১৭ সালে সৈয়দপুর পানি উন্নয়ন বোর্ড চাঁড়ালকাটা নদীর চর ড্রেজিং করে নদীর বালু উত্তোলন করে ক্যানেলের দুই পাশে ভরাট করে রাখে। এই সব বালু একটি চক্র পানি উন্নয়ন বোর্ডের অসাধু কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করে রাতের আঁধারে ১০ চাকার ট্রাকে করে রাতভর বেইলি ব্রীজের ওপর দিয়ে যান চলাচল করায় অতিরিক্ত লোডের কারণে ২০১৭ সালের ১৯ ডিসেম্বর ব্রীজের একটি পাটাতন ভেঙে পরে কর্তৃপক্ষ মেরামত করে দিয়ে যায়।

এলাকাবাসী জানায়, কর্তৃপক্ষ তড়িঘড়ি করে ওই ভাঙা অংশটুকু মেরামত করলে গত মঙ্গলবার আবারও ব্রীজের আর একটি পাটাতন ভেঙে নিচে পড়ে যায়। এতে করে যানবহন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

.
অটো চালক রুবেল হক ও আব্দুস সালাম নীলফামারীনিউজকে বলেন, ব্রিজটির পাটাতন ভেঙে যাওয়ার ফলে যাত্রীবাহী বাস ও পণ্যবাহী ট্রাক চলাচল বন্ধ রয়েছে। অনেক কষ্ট করে যাত্রীদের সহযোগীতায় অটো বাইক নিয়ে চলাচল করছি। কিন্তু পাটাতন ভেঙে যাওয়ার ফলে বাস, ট্রাকসহ ভারি যান চলাচল বন্ধ রয়েছে।

বাহাগিলী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান নীলফামারীনিউজকে বলেন, আমি ব্রিজটি খুব দ্রুত মেরামতের জন্য কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি। কিন্তু এখন পর্যন্ত ব্রিজটি ভাঙা অবস্থায় রয়েছে। ফলে এলাকাবাসী চরম দুর্ভোগের স্বীকার হচ্ছেন।

এ ব্যাপারে নীলফামারী জেলা সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী এ কে এম হামিদুর রহমান নীলফামারীনিউজকে বলেন, আমাদের সকল প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য উদ্যোগ নেয়া হয়েছে অল্প সময়ের মধ্যে বাহাগিলীর ব্রিজের কাজ শুরু করা হবে। তবে আগামী অর্থ বছরের বাজেটের জন্য অপেক্ষা করতে হবে।

‘এই গণমাধ্যমে প্রকাশিত কোন সংবাদ বা তথ্য কপি/পেষ্ট করে প্রকাশ করা কপিরাইট আইনে অবৈধ এবং দন্ডনীয় অপরাধ।’

‘সব ধরনের ঘটনা আমাদের জানাতে ০১৭১০৪৫৪৩০৬ নাম্বারে কল করুন।’