জলঢাকায় তিস্তা ব্যারেজ পানি ব্যবস্থাপনা ফেডারেশনের নির্বাচন সম্পন্ন

বাদশাহ শাহজাহান, ভ্রাম্যমান সংবাদদাতা- নীলফামারীর জলঢাকায় তিস্তা ব্যারেজ পানি ব্যবস্থাপনা ফেডারেশনের নির্বাচনে মিরাতুর রহমান চৌধুরী সভাপতি ও জিয়াউর রহমান সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন।

.
‘অামাদের কৃষি, অামাদের প্রান, কান্তে কোদাল দাও শান, তিস্তা বাঁচাও, নদী বাঁচাও, কৃষক বাঁচাও দেশ বাঁচাও’ এ শ্লোগান বাস্তবায়নের লক্ষে শনিবার (৭ এপ্রিল) নীলফামারীর জলঢাকা উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলীর কার্যালয়ে সকাল সারে ১০টা হতে বেলা ৩টা পর্যন্ত ব্যাপক উৎসাহ ও কঠোর পুলিশি নিরাপত্তায় বিরতিহীন ভাবে ভোট গ্রহণ চলে।

মিরাতুর রহমান চৌধুরী (চেয়ার প্রতীক) নিয়ে ৬৬ ভোট পেয়ে সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন দেলোয়ার হোসেন (ছাতা প্রতীক) তিনি পেয়েছেন ৪৭ভোট।

জিয়াউর রহমান (গরুর গাড়ী প্রতীক) তিনি ৬৫ভোট পেয়ে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন হুমায়ুন কবির (দোয়াত কলম প্রতীক) তিনি পেয়েছেন ৪৫ভোট।

সহ-সভাপতি পদে অাব্দুল মোকছেদ (মাছ প্রতীক) তিনি ৫৭ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী ইয়াহিয়া (সাইকেল প্রতীক) তিনি পেয়েছেন ৫৬ ভোট । এবং কোষাধ্যক্ষ পদে শাহজাহান অালী ৫৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী সাদেকুল ইসলাম, তিনি পেয়েছেন ৫৪ ভোট। ১শ ১৪জন ভোটার সকলেই তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।

প্রিজাইডিং অফিসারের দায়িত্বে ছিলেন- উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার চঞ্চল কুমার ভৌমিক।

প্রধান নির্বাচন কমাশনারের দায়িত্বে ছিলেন- সদস্য রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সিনেট, উপজেলা ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি ও শত ফুল ফুটতে দাও সংস্থার সভাপতি, কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার নির্মান কমিটির অাহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা অাব্দুল গাফ্ফার।

উল্লেখ্য, ৮জন বিভিন্ন পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

‘এই গণমাধ্যমে প্রকাশিত কোন সংবাদ বা তথ্য কপি/পেষ্ট করে প্রকাশ করা কপিরাইট আইনে অবৈধ এবং দন্ডনীয় অপরাধ।’