নীলফামারীতে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে ভিজিএফ চাল পাবে সাড়ে চার লাখ দরিদ্র!

বাদশাহ শাহজাহান, ভ্রাম্যমান সংবাদদাতা- নীলফামারী জেলার সদর উপজেলাসহ ছয় উপজেলা ও চার পৌরসভার দুস্থ, অসহায় গরীব মানুষের জন্য অাগামী পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয় জনপ্রতি ১০ কেজি করে মোট চার লাখ ৪২ হাজার ৩১৫ জন কার্ডধারীর বিপরীতে চার হাজার ৪৩ দশমিক ১৫০মেট্রিক টন ভিজিএফ চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

জেলা অফিস সুত্রে জানা যায়, সদর উপজেলায় ৯০ হাজার ৬৯০কার্ডধারীর বিপরীতে ৯শত মেট্রিক টন, জলঢাকায় ৭৮ হাজার কার্ডের বিপরিতে ৭৮০মেট্রিক টন, ডিমলায় ৬৭ হাজার ১৮৮টি কার্ডের বিপরীতে ৬শত মেট্রিক টন, কিশোরগঞ্জে ৫৭ হাজার ৫৪৭টি কার্ডের বিপরীতে ৫শত মেট্রিক টন, ডোমারে ৫৩ হাজার ৭০১ কার্ডধারীর বিপরীতে ৫শ মেট্রিক টন ও সৈয়দপুরে- ৪৪ হাজার ৩২৬টি কার্ডের বিপরীতে ৪শ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

এছাড়া, নীলফামারী ও সৈয়দপুর পৌরসভায় ৪ হাজার ৬২১জন করে এই দুই উপজেলায় সমান সংখ্যক কার্ডধারীর জন্য ৪৬ মেট্রিক টন করে, জলঢাকা পৌরসভায় ৩ হাজার ৮১ জন কার্ডধারীর বিপরীতে ৩০মেট্রিক টন ও ডোমার পৌরসভায় ১ হাজার ৫৪০ জন কার্ডধারীর বিপরীতে ১৫ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

জেলা ত্রাণ ও পূর্নবাসন কর্মকর্তা এ টি এম অাকতারুজ্জামান জানান, ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে দুই দফায় বরাদ্দকৃত ভিজিএফ চাউলের তালিকা প্রতিটি উপজেলা ত্রাণ অফিসে পাঠানো হয়েছে। প্রথম বরাদ্দের তালিকাটি পাঠানো হয়েছিল গত ১৭মে এবং দ্বিতীয় তালিকাটি চলতি মাসের ৪ তারিখে। সংশ্লিষ্টরা সরকারী নির্দেশনা অনুযায়ী ঈদের পূর্বেই এসব চাউল বিতরণ করবেন।

‘এই গণমাধ্যমে প্রকাশিত কোন সংবাদ বা তথ্য কপি/পেষ্ট করে প্রকাশ করা কপিরাইট আইনে অবৈধ এবং দন্ডনীয় অপরাধ।’