নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে পৃথক ঘটনায় শিশুসহ ৩ জনের অস্বাভাবিক মৃত্যু

খাদেমুল মোরসালিন শাকীর. কিশোরগঞ্জ (নীলফামারী) করেসপন্ডেন্ট নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলায় গাছের ডাল ভেঙ্গে এক ভ্যানচালক ও পানিতে ডুবে দু’শিশুর মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (১২ জুন) এ দুর্ঘটনা ঘটে।

উপজেলার পুটিমারী ইউনিয়নের কাচারীপাড়া গ্রামের মোফাজ্জেল হোসেনের ছেলে মো. জাকির হোসেন (৩৫) সকাল ৯ টায় তার নিজের আমের গাছে আম পাড়তে গিয়ে ডাল ভেঙ্গে গুরুতর আহত হন। তাকে প্রথমে কিশোরগঞ্জ হাসপাতালে ও পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। তিনি একজন পেশায় ভ্যান চালক।

এদিকে, কিশোরগঞ্জ সদর ইউনিয়নের গদা গ্রামের আব্দুল খালেকের স্কুল পড়ুয়া মেয়ে কেয়া মনি (৯) ধাইজান নদীতে গোসল করার সময় দুপুর ২টায় পানিতে ডুবে মারা যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে মৃত্যু অবস্থায় উদ্ধার করে। সে কিশোরগঞ্জ শহরের রেসিডেন্সিয়াল স্কুলের ৩য় শ্রেণির ছাত্রী।

অপরদিকে, দুপুর ১২টায় রণচন্ডি ইউনিয়নের সোনাকুড়ি দালাল টারী গ্রামে নানার বাড়ীতে বেড়াতে আসা স্কুল পড়ুয়া ছাত্রী মিম (৯) পুকুরে সাথিদের সাথে খেলার সময় পানিতে ডুবে যায়। অনেক খোজাঁ খোঁজির পর তাকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।

তার নানা ইয়াকুব হোসেন জানান, তার গ্রামের বাড়ী একই উপজেলার গাড়াগ্রাম ইউনিয়নের পশ্চিম দলিরাম হাজীপাড়া গ্রামে। তার বাবার নাম মনো মিয়া। মিম গাড়াগ্রাম টেপা চম্পাফুলেরতল ব্রাক স্কুলের ৩য় শ্রেণির ছাত্রী।

কিশোরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হারুন অর রশিদ ঘটনার সত্যতা নীলফামারীনিউজকে নিশ্চিত করেছেন।

‘এই গণমাধ্যমে প্রকাশিত কোন সংবাদ বা তথ্য কপি/পেষ্ট করে প্রকাশ করা কপিরাইট আইনে অবৈধ এবং দন্ডনীয় অপরাধ।’