রংপুরে জমে উঠেছে শেষ মুহুর্তের ঈদ বাজার, প্রতিদিন ১৮ কোটি টাকা বিক্রি!

নীলফামারীনিউজ, ডেস্ক রিপোর্ট- রমজানের শেষ সময়ে এসে জমে উঠেছে রংপুরের ঈদ বাজার। গত বছরের চেয়ে এবার জিনিসপত্রের দাম বেশি ও বিক্রি ভালো। সাধারণ ক্রেতাদের মধ্যে পণ্যের দাম বৃদ্ধির অভিযোগ থাকলেও শেষ পর্যন্ত না কিনে উপায় থাকছে না। ব্যবসায়ীরা জানায়, রংপুর শহরে প্রতিদিন প্রায় ১৮ কোটি টাকার বেচাকেনা হচ্ছে।

রংপুর মেট্রোপলিটন চেম্বারের প্রেসিডেন্ট রেজাউল ইসলাম মিলন জানান, শহর ও আশপাশ এলাকায় ছোট-বড় মিলিয়ে প্রায় তিন হাজার পোশাক, জুতা ও কসমেটিকের দোকান রয়েছে। এসব দোকানের প্রতিটিতে গড়ে প্রতিদিন বিক্রি হচ্ছে ৬০ হাজার টাকা। এতে প্রতিদিন মোট বিক্রি হচ্ছে ১৮ কোটি টাকা।

তিনি জানান, গত বছরের চেয়ে এবার পণ্যের দাম বেশি, তবে বিক্রিও বেশি। এ বিক্রি ঈদের আগের রাত পর্যন্ত আরো বেড়ে যাবে। ক্রেতারা মধ্যরাত অবধি কেনাকাটা করছে উল্লেখ করে মিলন আরো জানান, বর্তমান সময়ে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা থাকার পাশাপাশি চাকরিজীবীদের সময়মতো বেতন-বোনাস হওয়ায় ঈদের কেনাকাটায় গতি এসেছে। রংপুর শহরের বেশ কয়েকটি মার্কেট ঘুরে দেখা গেছে, গভীর রাত অবধি চলছে বেচাকেনা।

ক্রেতাদের ভিড়ে হিমশিম খেতে হচ্ছে দোকানিদের। রংপুর বিভাগ ও সিটি করপোরেশন হওয়ার পর লোকজনের ভিড় ও বিক্রি আরো বেড়ে গেছে।

ক্রেতারা অভিযোগ করে বলে, বাজারে বিচিত্র রকমের পোশাক ও কাপড় এলেও দাম অস্বাভাবিক। এতে উচ্চ ও মধ্যবিত্ত শ্রেণির মানুষজন কেনাকাটা করতে পারলেও বিপাকে পড়েছে নিম্নবিত্ত আয়ের মানুষ। এ ব্যাপারে মরিয়ম শাড়িঘরের স্বত্বাধিকারী শহিদুল ইসলাম বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে সুতার দাম বেড়ে যাওয়ায় কাপড়ের দাম এবার তুলনামূলক অনেক বেশি।

তিনি জানান, সব মিলিয়ে ঈদের বাজার ভালোই চলছে। রংপুর সুপারমার্কেটে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তহমিনা ও তাঁর ভাই রবিউল ইসলাম একটি পাঞ্জাবি ও একটি থ্রিপিস কিনেছেন ১০ হাজার টাকায়। তাঁরা জানান, গত বছর ওই একই রকমের পোশাক তাঁরা ছয় হাজার টাকায় কিনেছিলেন। সূত্র: কালের কণ্ঠ

‘এই গণমাধ্যমে প্রকাশিত কোন সংবাদ বা তথ্য কপি/পেষ্ট করে প্রকাশ করা কপিরাইট আইনে অবৈধ এবং দন্ডনীয় অপরাধ।’