নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে স্কুলের বাউন্ডারি প্রাচীর নির্মাণে বাঁধা দেয়ার অভিযোগ

নীলফামারীনিউজ, কিশোরগঞ্জ (নীলফামারী) করেসপন্ডেন্ট- নীলফামারী কিশোরগঞ্জ উপজেলার গদা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বাউন্ডারী ওয়াল দিতে বাধা দিয়েছে ওই এলাকার অহিদুল ইসলাম।

জানা গেছে, কিশোরগঞ্জ বড়ভিটা সড়কের ব্যস্ততম সাথে স্কুলটি হওয়ায় শিক্ষার্থীদের চলাচলে সমস্যা হয়। ফলে সরকারী ভাবে বরাদ্দ আসে স্কুলটির বাউন্ডারী ওয়ালের জন্য। বাউন্ডারী ওয়ালের কাজ শুরু করলে স্কুলের সাথে থাকা গোশত ব্যবসায়ী (কসাই) তার বাড়ী যাতায়াতের জন্য স্কুলের প্রধান শিক্ষকের কাছে রাস্তা চায়।

প্রধান শিক্ষক ও স্কুল কমিটির সভাপতি দিলিপ মেম্বার তাদের চলাচলের জন্য স্কুলের বাউন্ডারীর পার্শ্ব দিয়ে জায়গা ছেড়ে দিয়ে কাজ শুরু করলে তারা স্কুলের বাউন্ডারী দিতে বাধা প্রদান করে।

অহিদুল ইসলামের দাবী আমি প্রায় ৭ বছর থেকে স্কুলের ভিতর দিয়ে আমার বাড়ী যাতায়াত করে থাকি। কিন্তু হঠাৎ করে স্কুলের প্রধান শিক্ষক আমার যাতায়াতের রাস্তা বন্ধ করে স্কুলের বাউন্ডারী ওয়াল দিয়েছে। আমি গরীব মানুষ রাস্তার জমির জন্য প্রায় দেড় লাখ টাকার প্রয়োজন আমি এত টাকা কোথায় পাব। এ বিষয়ে আমি শিক্ষা অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবহিত করেছি।

স্কুলের প্রধান শিক্ষক নাসিদা বেগম বলেন, আমার রাস্তা দেয়ার ব্যাপারে কোন মন্তব্য করার নেই। আমি রাস্তা দেয়ার কেউ না। সরকারী মালামাল হেফাজতের জন্য স্কুলের বাউন্ডারী দরকার এবং বাউন্ডারী ওয়াল থাকলে স্কুলের মালামাল সুরক্ষিত থাকবে। কিন্তু তাকে দুটি পকেট গেট দিলে স্কুলের প্রয়োজনীয় মালামালের দায়িত্ব কে নিবে।

কিশোরগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) মোতাহার হোসেন নীলফামারীনিউজকে বলেন, বিষয়টি শুনেছি নবাগত উপজেলা শিক্ষা অফিসার যোগদান করেছেন। তাকে বিষয়টি অবহিত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

‘এই গণমাধ্যমে প্রকাশিত কোন সংবাদ বা তথ্য কপি/পেষ্ট করে প্রকাশ করা কপিরাইট আইনে অবৈধ এবং দন্ডনীয় অপরাধ।’