ডিমলায় শিশু ধর্ষণ চেষ্টার ১৩ দিন পার হলেও অভিযুক্তকে আটক করেনি পুলিশ!

বাদশা সেকেন্দার ভুট্টু, ডিমলা (নীলফামারী) প্রতিনিধি- গত ২৬ জুলাই ডিমলা উপজেলার বালাপাড়া ইউনিয়নের দক্ষিন বালাপাড়া গ্রামের জনৈক হাসান আলীর কন্যা হাছনা (৬) বাড়ীর সম্মুখে খেলা করছিল। শিশুটিকে একা দেখে সেই সুযোগে একই এলাকার মমিনুর রহমানের পুত্র আঃ রহিম (১৬) হাছনাকে টাকা ও খেলনা কিনে দেওয়ার লোভ দেখিয়ে বাড়ীর পার্শ্বে একটি বাঁশঝাড়ে নিয়ে যায় এবং শিশুটির উপর ধর্ষনের চেষ্টা চালায়।

শিশুটিকে বাড়ীর সম্মুখে খেলতে না দেখে তার পিতা-মাতা হাছনাকে খুঁজতে থাকে। এ সময় বাঁশঝাড়ের নিকট গেলে উক্ত রহিম মেয়ের পিতা-মাতাকে আসতে দেখে দৌড়ে পালিয়ে যায়। এ ঘটনাটি এলাকার গন্যমান্য, ইউ.পি সদস্য, সাবেক ইউ.পি চেয়ারম্যান সকলকে শিশুটির পিতা-মাতা জানান।

এ বিষয়টি নিয়ে তারা আইনের আশ্রয় গ্রহন করতে বলে। শিশুটির পিতা হাছান আলী এ প্রসঙ্গে ডিমলা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেন। ডিমলা থানার ওসি (তদন্ত) সোহেল রানা ও এ.এস.আই ইলিয়াছ আলী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। তবে অভিযুক্ত কিশোরকে এখন পর্যন্ত আটক করেননি।

এ বিষয়টি এলাকার একটি পক্ষ বিষয়টি আপোষ করার কথা বলে শিশুটির পিতাকে কালক্ষেপন করছে। এ ঘটনার বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণের দাবী জানিয়েছেন মানবধিকার কর্মীসহ এলাকার সচেতন মহল।

‘এই গণমাধ্যমে প্রকাশিত কোন সংবাদ বা তথ্য কপি/পেষ্ট করে প্রকাশ করা কপিরাইট আইনে অবৈধ এবং দন্ডনীয় অপরাধ।’