কিশোরগঞ্জে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত

খাদেমুল মোরসালিন শাকীর,কিশোরগঞ্জ (নীলফামারী) প্রতিনিধি ॥ নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা অফিসের আয়োজনে শনিবার বিকালে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের উপজেলা পর্যায়ে চুড়ান্ত খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে উক্ত চুড়ান্ত খেলায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন নীলফামারী-৪ আসনের সংসদ সদস্য শওকত চৌধুরী। বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন কিশোরগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রশিদুল ইসলাম,উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও নীলফামারী -৪ আসনের নৌকা প্রত্যাশী জাকির হোসেন বাবুল,উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার শরিফা আখতার,কিশোরগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মফিজুল ইসলাম,সহকারী উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোতাহার হোসেন,রফিকুল ইসলাম,আফজালুল হক,নুরুজ্জামান বকুল,নিলুফা আকতার ও আতাউর হোসেন প্রমূখ।


উক্ত বঙ্গবন্ধু ও গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট খেলায় যে দলগুলো অংশ গ্রহন করেন- বালক পর্যায়ে নয়ানখাল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও চাঁদখানা ২নং সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়। অপর দিকে বালিকা পর্যায়ে নিতাই বাড়ী মধুপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মুখোমুখী হয় কেশবা ইউনাইটেড মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়। ৪০ মিনিটের এ খেলায় বালিকা পর্যায়ে নিতাই বাড়ী মধুপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কেশবা ইউনাইটেড মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় অনেক চেষ্টা করেও কোন গোলের দেখা না পেয়ে অবশেষে ট্রাইব্রেকারের মাধ্যমে নিতাই বাড়ী মধুপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ৩-১ গোলের ব্যবধানে কেশবা ইউনাইটেড মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়কে পরাজিত করে নিজের জয় ছিনিয়ে নেয়। অপর দিকে বালক দলের হাড্ডা হাড্ডি লড়াইয়ে নয়ানখাল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়কে ২-১ গোলে হারিয়ে চাঁদখানা ২নং সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় জয়লাভ করেন।
বালিকা দলের পক্ষে নিতাই বাড়ী মধুপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চ্যাম্পিয়ন শিরোপা গ্রহন করেন প্রধান শিক্ষিকা কামরুন্নাহার রূপালী ও বালক দলের পক্ষে চাঁদখানা ২নং সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চ্যাম্পিয়ন শিরোপা গ্রহন করেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক মশিয়ার রহমান ও এস এম সি কমিটির সভাপতি ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ শফিকুল ইসলাম শফিক।

‘এই গণমাধ্যমে প্রকাশিত কোন সংবাদ বা তথ্য কপি/পেষ্ট করে প্রকাশ করা কপিরাইট আইনে অবৈধ এবং দন্ডনীয় অপরাধ।’