নর থেকে নারী: জলঢাকায় এক সন্তানের জনককে নিয়ে চাঞ্চল্য!

নীলফামারীনিউজ, ডেস্ক রিপোর্ট- ‘নর থেকে নারী’-এমন ঘটনায় তোলপাড় নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলার কাঁঠালী ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের উত্তর দেশীবাই গ্রামে। এ গ্রামেরই মাজেদুল ইসলামের ছেলে রাজমিস্ত্রি জরিবুল ইসলাম (২১) রাতারাতি পুরুষ থেকে পরিণত হয়েছেন নারীতে। এমন ঘটনায় গোটা উপজেলায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। খবর নয়া দিগন্তের।

জানা গেছে, পেশায় রাজমিস্ত্রি জরিবুল আজ থেকে পাঁচ বছর আগে পাশের গ্রামের হোসনে আরার (১৯) সাথে বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হন। দেড় বছরের মাথায় জন্ম নেয় ফুটফুটে এক ছেলে সন্তান। জরিবুল বেশির ভাগ সময় ঢাকায় রাজমিস্ত্রির কাজ করতেন। এরই মধ্যে গত ৪ সেপ্টেম্বর মেয়েলী পোশাকে হঠাৎ জরিবুল গ্রামের বাড়িতে এসে উপস্থিত হন। তার মেয়েলী চালচলন ও পোশাক দেখে এলাকায় শুরু হয় কানাঘুষা।

গতকাল সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, জরিবুলের বাড়িতে অসংখ্য মানুষের ভিড়। দলে-দলে বিভিন্ন এলাকা থেকে লোকজন আসছেন কথিত ‘নর থেকে নারীতে’ রূপান্তরিত জরিবুলকে দেখতে।

জরিবুল ইসলামের বাবা-মা বলেন, কিশোর বয়স থেকে তার চালচলন মেয়েলী স্বভাবের ছিল। অনেকবার কবিরাজি চিকিৎসা করিয়েছি কিন্তু তার স্বভাব পরিবর্তন হয়নি। মেয়েলী স্বভাব থাকলেও কোনো দিন সে মেয়েদের পোশাক পরেনি বলে তারা জানান। ওই এলাকার জাহাঙ্গীর আলম বলেন, শুনেছি জরিবুল ঢাকায় ইদানীং হিজরাদের সাথে মিশে ভিক্ষাবৃত্তির পেশা গ্রহণ করেছে। তাই এমনটি হতে পারে বলে তিনি জানান।

জরিবুল ইসলাম জানান, আমি বর্তমানে যা-ই হই না কেন আমি আমার স্ত্রী ও সন্তানের ভরণ-পোষণের দায়িত্ব পালন করব।

এ ব্যাপারে নীলফামারী আধুনিক সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডা: আসাদ আলম বলেন, হরমোনের কারণে এমন ঘটনা ঘটতে পারে। আবার ইদানীং অনেক উন্নত দেশে আধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে লিঙ্গান্তর সম্ভব হচ্ছে। তবে পরীক্ষা-নিরীক্ষা না করে কিছু বলা যাবে না।

‘এই গণমাধ্যমে প্রকাশিত কোন সংবাদ বা তথ্য কপি/পেষ্ট করে প্রকাশ করা কপিরাইট আইনে অবৈধ এবং দন্ডনীয় অপরাধ।’

‘সব ধরনের ঘটনা আমাদের জানাতে ০১৭১০৪৫৪৩০৬ নাম্বারে কল করুন।’