বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ম্যাচ ঘিরে আবার আলোচনায় হাথুরুসিংহে

নীলফামারীনিউজ, ডেস্ক রিপোর্ট- বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ম্যাচ ঘিরে আবারো আলোচনার প্রধান বিষয় হয়ে আসছেন চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। ১৫ সেপ্টেম্বর এশিয়া কাপের উদ্বোধনী ম্যাচেই শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি বাংলাদেশ। টাইগারদের সাবেক কোচ হাথুরুসিংহেও তাই আসছেন আলোচনায়। এমন কি সংবাদ সম্মেলনে দুই দলের খেলোয়াড়দেরই কথা বলতে হচ্ছে শ্রীলঙ্কার বর্তমান কোচ হাথুরুসিংহেকে নিয়ে।

২০১৭ সালে বাংলাদেশের দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের পরই মাশারাফী-সাকিবদের দায়িত্ব ছাড়েন হাথুরুসিংহে। পরে নিজ দেশের প্রধান কোচ হিসেবে দায়িত্ব নেন। শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের কোচ হিসেবে নিজের মিশন শুরু করেন আবার বাংলাদেশের মাটিতেই। বাংলাদেশে থেকে ত্রিদেশীয় সিরিজের শিরোপা নিয়ে ফিরেন। স্বাগতিকদের বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজেও জয় পায় হাথুরুসিংহের শ্রীলঙ্কা।

বাংলাদেশ আবার শ্রীলঙ্কার মাটিতে নিদাহাস ট্রফিতে হাথুরুসিংহের দলের বিপক্ষে প্রতিশোধ নেয়। ত্রিদেশীয় টি-টুয়েন্টি সিরিজটিতে দুই বারের দেখাতেই শ্রীলঙ্কাকে হারায় বাংলাদেশ। এই দুই সিরিজেই সংবাদ মাধ্যমে তুমুল আলোচনায় ছিলেন হাথুরুসিংহে। এশিয়া কাপেই বা বাদ থাকবেন কেন? বিশেষ করে ২০১৬ সালে হাথুরুসিংহের অধীনেই যখন এশিয়া কাপের ফাইনালে খেলেছে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচের আগে হাথুরুসিংহেকেই আবার সবচেয়ে বড় শক্তি মানছে শ্রীলঙ্কা। দলটির অন্যতম সদস্য ধনঞ্জয়া ডি সিলভা সংবাদ মাধ্যমকে বলেছেন, ‘তিনি (হাথুরুসিংহে) বাংলাদেশের শক্তি ও দুর্বলতার জায়গাগুলো জানে। আমাদের তাই এখান থেকে ইতিবাচক দিকগুলো তুলে নেওয়ার ভালো সুযোগ রয়েছে। এটি আমাদের জন্য শক্তিশালী জায়গা।’

আগের দুই সিরিজের মতো বাংলাদেশ দলের সদস্যদেরও হাথুরুসিংহেকে নিয়ে কথা বলতে হচ্ছে। তামিম ইকবাল অবশ্য বলে দিয়েছেন সাবেক গুরুর বিরুদ্ধে জয়ের জন্যই খেলবেন তারা। তবে কোনো প্রতিশোধ জাতীয় কথা মাথায় আনতে চান না, ‘অবশ্যই আমরা আমাদের সাবেক কোচকে হারাতে চাই। তবে খুব ভালো মানসিকতা নিয়ে, কোনো প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য নয়।’

‘এই গণমাধ্যমে প্রকাশিত কোন সংবাদ বা তথ্য কপি/পেষ্ট করে প্রকাশ করা কপিরাইট আইনে অবৈধ এবং দন্ডনীয় অপরাধ।’