ডোমারে ১০ দিনের শিশুকন্যাকে বাচাঁতে বিত্তবানদের কাছে বাবা-মায়ের আকুতি

নীলফামারীনিউজ, ডোমার অফিস- নীলফামারীর ডোমারে পেটের নাড় সমস্যা নিয়ে জন্ম নেয়া ১০দিনের শিশুকন্যাকে মাত্র ৬০ (ষাট) হাজার টাকার জন্য চিকিৎসা করাতে পারছে না আইসক্রিম বিক্রেতা বাবা নারায়ন চন্দ্র।শিশুটিকে বাচাঁতে দেশের বিত্তবানদের কাছে আকুল আবেদন জানিয়েছে তার বাবা-মা।

গত ১২ই সেপ্টেম্বর ডোমার উপজেলার বোড়াগাড়ী ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের পশ্চিম বোড়াগাড়ী নুথুপাড়া গ্রামের আইসক্রিম বিক্রেতা বাবা নারায়ন চন্দ্র ও মা কোকিলা রানীর কোল জুড়ে জন্ম নেয় এক ফুটফুটে কন্যা সন্তান।

কিন্তু অদৃষ্টের নির্মম পরিহাস শিশুটির পেটের একটি নাড়ের সমস্যার কারনে শিশুটি মুখ দিয়ে খায় এবং মুখ দিয়ে পায়খানা করে। শিশুটির শাররীক ত্রুটি দেখা দিলে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ জরুরী বিভাগে ডাক্তার দেখান । ডাক্তার শিশুটিকে দ্রæত রংপুর মেডিক্যাল কলেজে ভর্তির পরামর্শ দেন।

রংপুরে একটি বে-সরকারী হাসপাতালে ডাক্তার কয়েকটি পরিক্ষা নিরিক্ষা করে জানান, শিশুটির দুই দফায় শরীরে অস্ত্র প্রচার করাতে হবে। খরচ পড়বে ৬০ হাজার টাকা। ডাক্তারের কথা শোনার পর আইসক্রিম ফেরিওয়ালা বাবা-মা হতাশায় কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। সন্তানের চিকিৎসার জন্য এই টাকা যোগাড় করার সাধ্য তাদের নেই তাই নিরুপায় হয়ে শিশুটিকে নিয়ে বাড়ী চলে আসেন। বাড়ীতে অসহায় মা-বাবা সন্তানের মৃত্যুর দিন ক্ষনের অপেক্ষা করছে।

এ সামান্য টাকা খরচ করার মতো সামর্থ নেই আইসক্রিম বিক্রেতা নারায়ন চন্দ্রের।সদ্য নবজাতককে বাচাঁতে তার মা-বাবা সমাজের স্বহৃদয়বান ব্যক্তিদের কাছে আকুতি জানান।

‘এই গণমাধ্যমে প্রকাশিত কোন সংবাদ বা তথ্য কপি/পেষ্ট করে প্রকাশ করা কপিরাইট আইনে অবৈধ এবং দন্ডনীয় অপরাধ।’