সৈয়দপুরে শিক্ষার্থীদের মাঝে পৌর বৃত্তির চেক ও সনদ বিতরণ

মো.জাহিদুল হাসান জাহিদ-নীলফামারীর সৈয়দপুর পৌরসভার ব্যবস্হাপনায় পৌর বৃত্তি পরীক্ষায় অংশ গ্রহনকারী মেধা তালিকায় উর্ত্তীন শিক্ষার্থীদের মাঝে চেক ও সনদ প্রদান করা হয়েছে৷

বৃহস্পতিবার(৪অক্টোবর)সকাল ১১ টায় সৈয়দপুর পৌরসভা সড়কস্হ আদিবা কনভেনশন হল এ পৌর বৃত্তির চেক ও সনদ প্রদানের আয়োজন করা হয়৷

সৈয়দপুরের প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিশু শ্রেনি হতে অষ্টম শ্রেনীর শিক্ষার্থীদের পড়া লেখার প্রতি উৎসাহ উদ্ধিপনা বৃদ্ধির করার লক্ষে সৈয়দপুর পৌরসভার মেয়র অধ্যক্ষ মো.আমজাদ হোসেন সরকার ১৯৯৭ সাল থেকে এই পৌর বৃত্তির আয়োজন করেন৷ এইবার সৈয়দপুর পৌর বৃত্তি ২০১৮ তে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৬৬৯জন শিক্ষার্থী অংশ গ্রহন করেন৷এদের মধ্য হতে ৯১ জন শিক্ষার্থী মেধা তালিকায় উর্ত্তীন হয়৷

উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীর হাতে পৌর বৃত্তির চেক ও সনদ তুলেদেন, দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রধান অতিথি জনাব মো.আবু বক্কর সিদ্দিক৷

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি এপিএস আবুল কালাম আজাদের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন,ঘুমিয়ে স্বপ্ন দেখাকে কখনও স্বপ্ন বলা যায় না৷ প্রকৃত স্বপ্ন দেখতে হলে জেগে স্বপ্ন দেখতে হবে৷আর এই স্বপ্ন বাস্তব করতে ছাত্র ছাত্রীদের অবশ্যই প্রকৃতির শিক্ষা ও বই পড়ার মাধ্যমে সে নিজে ও দেশের স্বপ্ন পূরণ করতে পারে৷ শিক্ষার্থীদের মাঝে পড়া লেখার প্রতি উৎসাহ উদ্দীপনা বাড়াতে সৈয়দপুর পৌরসভা যে বৃত্তির ব্যবস্হা করেছে এই জন্য তিনি পৌর মেয়র অধ্যক্ষ আমজাদ হোসেন সরকার কে ও তার পৌর পরিষদ কে ধন্যবাদ জানান৷

চেক ও সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানের সভাপতি মেয়র অধ্যক্ষ মো.আমজাদ হোনেন সরকার তার বক্তব্যে বলেন,প্রতিটি ছাত্র ছাত্রীকে প্রেম করার পরার্মশ দেন৷
এই প্রেম বলতে সে বলেন, প্রথম প্রেম করতে হবে সৃষ্টি কর্তার সাথে৷ দ্বিতীয় প্রেম করতে হবে বাবা মার সাথে৷ তৃতীয় প্রেম করতে হবে শিক্ষকের সাথে৷ চতুর্থ প্রেম করতে হবে বইয়ে সাথে এবং পঞ্চম প্রেম করতে হবে দেশের সাথে৷

ওইসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্যদেন,সৈয়দপুর কারিগরি মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ ড.আমির আলী আজাদ,নীলফামারী জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো.শফিকুল ইসলাম,সৈয়দপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রেহানা পারভীন৷

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন,রুহুল আমিন মাষ্টার,প্যানেল মেয়র-১ মো.জিয়াউল হক জিয়া,প্যানেল মেয়র-২ মো.শাহিন আখতার,মহিলা প্যানেল মেয়র-৩ কাজী জাহানারা বেগম,যমুনা টেলিভিশনের বিশেষ রিপোর্টার আলমগীর স্বপন,আল ফারুক একাডেমির অধ্যক্ষ মো.শফিকুল ইসলাম সহ শিক্ষার্থীর পিতা মাতা৷

আলোচনার প্রথমে পবিত্র কোরআন,গীতা ও বাইবেল পাঠের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান আরম্ভ হয়৷
পরে অতিথিদের ফুলেল তোরা দিয়ে শুভেচ্ছা জানান পৌর পরিষদের কাউন্সিলর বৃন্দ৷
ওই সময় বিদ্যালয়ের শিক্ষক,শিক্ষার্থী,অভিভাবক,সাংবাদিক, পৌরসভার কর্মকর্তা সহ বিভিন্ন পেশার মানুষ উপস্হিত ছিলেন৷

অনুষ্ঠানটি উপস্হাপনা করেন,মো.আকমল হোসেন রাজু৷

‘এই গণমাধ্যমে প্রকাশিত কোন সংবাদ বা তথ্য কপি/পেষ্ট করে প্রকাশ করা কপিরাইট আইনে অবৈধ এবং দন্ডনীয় অপরাধ।’