খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় মেডিকেল বোর্ডের সভা আজ

নীলফামারীনিউজ, ডেস্ক রিপোর্ট- দুর্নীতির মামলায় সাজাপ্রাপ্ত বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) ভর্তি করা হয়েছে। হাসপাতালের ৬১২ নম্বর ভিআইপি কেবিনে থেকে চিকিৎসা নেবেন তিনি।

এদিকে, খালেদা জিয়ার চিকিৎসার বিষয়ে গঠিত মেডিকেল বোর্ডের সভা আজ। রোববার (৭ অক্টোবর) দুপুরে সভাটি অনুষ্ঠিত হবে। এরপর শুরু হবে তাঁর প্রয়োজনীয় চিকিৎসা।

হাইকোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য মেডিকেল বোর্ড পুনর্গঠন করা হয়। ৫ সদস্যের মেডিকেল বোর্ডে প্রধান হিসেবে আছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) ইন্টারনাল মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক আবদুল জলিল চৌধুরী।

এছাড়াও আছেন- রিউমেটোলজি বিভাগের অধ্যাপক সৈয়দ আতিকুল হক, কার্ডিওলজি বিভাগের অধ্যাপক সজল কৃষ্ণ ব্যানার্জী, অর্থোপেডিক বিভাগের অধ্যাপক নকুল কুমার দত্ত ও ফিজিক্যাল মেডিসিন অ্যান্ড রিহ্যাবলিটেশন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক বদরুন্নেসা আহমেদ।

আদালতের নির্দেশে শনিবার তাকে পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে এ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। বিএসএমএমইউতে ভর্তির পর বিকেল পৌনে ৫টায় সি-ব্লকের কনফারেন্স রুমে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবদুল্লাহ আল হারুন।

তিনি বলেন, ‘খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য গঠিত পাঁচ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড রবিবার (আজ) বৈঠকে বসবে। খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের কেবিন ব্লকের ষষ্ঠ তলায় অবস্থান করছেন। তার চিকিৎসার বিষয়ে আদালত থেকে একটি আদেশ জারি করা হয়েছিল। ওই নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করেছি। খালেদা জিয়া আসার পর বোর্ডের প্রধান অধ্যাপক ডা. এমএ জলিল চৌধুরী তার সঙ্গে দেখা করেন। চিকিৎসা শুরুর আগে যেসব ফরমালিটিজ করা প্রয়োজন সেগুলো করা হয়েছে। রবিবার (আজ) দুপুর ১টার পর পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট মেডিকেল বোর্ডের সভা হবে। বোর্ডের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আমরা চিকিৎসা শুরু করতে পারব।’

এর আগে শনিবার বিকেল ৩টা ৪০ মিনিটে ঢাকা মেট্রোপলিন পুলিশের (ডিএমপি) একটি প্রাইভেটকারে করে বেগম জিয়াকে বিএসএমএমইউ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। হাসপালের ৬১২ নম্বর ভিআইপি কেবিনে থেকে চিকিৎসা নেবেন সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী।

গত ৪ অক্টোবর হাইকোর্টের এক আদেশে বলা হয়, খালেদা জিয়া চাইলে তাঁর পছন্দ মতো ফিজিওথেরাপিস্ট, গাইকোনকলজিস্ট ও টেকনিশিয়ান নিতে পারবেন। এমনকি তিনি বাইরে থেকেও বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দিয়ে চিকিৎসা করাতে পারবেন। তবে সেক্ষেত্রে মেডিকেল বোর্ডের অনুমতি লাগবে।

এর আগে ৯ সেপ্টেম্বর ইউনাইটেড বা বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসাসেবা দিতে নির্দেশনা চেয়ে খালেদা জিয়ার পক্ষে রিট করেন তার আইনজীবীরা।

উল্লেখ্য, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়াকে ৫ বছরের কারাদণ্ড ও আর্থিক জরিমানা করে গত ৮ ফেব্রুয়ারি রায় ঘোষণা করে ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫। রায় ঘোষণার পর ওই দিনই তাঁকে নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। এর পর থেকে তিনি সেখানেই ছিলেন।

‘এই গণমাধ্যমে প্রকাশিত কোন সংবাদ বা তথ্য কপি/পেষ্ট করে প্রকাশ করা কপিরাইট আইনে অবৈধ।’

‘সব ধরনের ঘটনা আমাদের জানাতে ০১৭১০৪৫৪৩০৬ নাম্বারে কল করুন।’